মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ১২:৪৬ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
চকরিয়ায় বসতভিটা থেকে উচ্ছেদে নারীকে ধর্ষণচেষ্টা ও শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগ জাহাঙ্গীর মেচ ও শাহ মজিদিয়া রেস্টুরেন্টকে জরিমানা কক্সবাজারে জেলা প্রশাসকের উদ্যোগে এবার হচ্ছে ‘শিশু হাসপাতাল’ বিজিবির অভিযান: ৬০ হাজার ইয়াবাসহ রোহিঙ্গা যুবক আটক ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে এসআর নিহত অবৈধ দখলঃ ২ একর সরকারি বনভূমি উদ্ধার সৈকতে মাস্ক ব্যবহার না করায় ৪২ জন পর্যটক ও ব্যবসায়ীকে ৬০২০ টাকা জরিমানা বিএনপি বাসে আগুন দিয়ে আ’লীগ সরকারের উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত চায়: সড়ক উদ্বোধন অনুষ্ঠানে সেতু মন্ত্রী টেকনাফে ইয়াবাসহ দুই মাদক কারবারী আটক:বিভিন্ন সরঞ্জামাদি জব্দ টেকনাফে সরকারি খাস জমিতে নির্মাণাধীন মার্কেটের কাজ বন্ধ করে দিলেন-স্থানীয় সাংসদ

টেকনাফে চিহ্নিত ইয়াবা কারবারি কমিউনিটি পুলিশের সদস্য

সিসিএন
  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
  • ১৪১ বার পঠিত

ডেস্ক নিউজঃঃ-  

টেকনাফের শাহ পরীরদ্বীপে ইয়াবা কারবারিকে কমিউনিটি পুলিশের সদস্য করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ বিষয়টি কেন্দ্র করে পুরো টেকনাফ সীমান্ত এলাকায় ব্যাপক সমালোচনা চলছে। কমিউনিটি পুলিশের সদস্য হতে পেরে ওই ইয়াবা কারবারি জায়েদ উল্লাহ পুলিশকে ভুল তথ্য দিচ্ছে। নিয়মিত যাওয়া-আসা করছে থানা ও ফাঁড়িতে। তার প্রতিপক্ষ ও নিরীহ মানুষের ব্যাপারে মিথ্যা সংবাদ দিয়ে পুলিশের কান ভারি করছে। পুলিশ টাকার জন্য নিরীহ লোকজনকে ধরে নিয়ে আসছে বলে জানা গেছে। অভিযোগে জানা যায়, শাহপরীর দ্বীপ পশ্চিম-উত্তরপাড়ার নুরুল হকের পুত্র জায়েদ উল্লাহ একজন চিহ্নিত ইয়াবা কারবারি। সরকারের বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা ইতোপূর্বে ইয়াবা কারবারি অন্যদের সঙ্গে তার নামের তালিকাও পাঠিয়েছিল সংশ্লিষ্ট দফতরে।

বর্তমানে শাহপরীর দ্বীপ পুলিশ ফাঁড়িতে দায়িত্বরত এক শ্রেণীর অসৎ পুলিশের সঙ্গে সখ্য গড়ে তোলে নিরীহ বাসিন্দাদের হয়রানি করছে। সরকারী দলের অঙ্গসংগঠনে জড়িত থাকায় কেউ প্রতিবাদ করার সাহস পাচ্ছে না বলে জানা গেছে। স্থানীয়রা বলেন, ইয়াবা কারবারে সম্পৃক্ত কাউকে কমিউনিটি পুলিশিংয়ে সদস্য না করার জন্য জেলা পুলিশ সুপারের নিষেধ থাকা সত্ত্বেও কিছুদিন আগে গঠিত কমিউনিটি পুলিশের কমিটিতে কৌশলে জায়েদ উল্লাহ নিজের নামটি লিপিবদ্ধ করিয়ে নিয়েছে। ২০১৪ সালেও গোয়েন্দা সংস্থার প্রতিবেদনে ইয়াবা কারবারি হিসেবে জায়েদ উল্লাহর নাম রয়েছে। এ তথ্য স্থানীয় পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে। ওই তথ্য গোপন রেখে কৌশলে কমিউনিটি পুলিশের সদস্য তালিকায় নাম লিখিয়ে ইয়াবা কারবার চালিয়ে যাচ্ছে। স্থানীয়রা আরও বলেন, ইয়াবা সম্রাটদের মধ্যে কেউ কেউ সরকারদলীয় নেতাকর্মী বলে দাপট দেখিয়ে রয়ে গেছে এখনও বহাল তবিয়তে। তারা এক শ্রেণীর অসৎ পুলিশের সঙ্গে গোপন আঁতাত করে শাহপরীর দ্বীপ পয়েন্ট দিয়ে ইয়াবার চালান আনছে মিয়ানমার থেকে। অভিযোগ সত্য জানিয়ে শাহপরীর দ্বীপ সাংগঠনিক ইউনিয়ন কমিনিউটি পুলিশের সভাপতি ও উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা সোনা আলী বলেন, ওই জায়েদ উল্লাহ টেকনাফে এক শ্রেণীর পুলিশের দালালী করছে বলে শোনা গেছে। অন্যায়কারীকে আমরা কখনও প্রশ্রয় দেব না। তিনি এ ব্যাপারে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2019 | কক্সবাজার ক্রাইম নিউজ
Theme Customized By Shah Mohammad Robel