বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ০৫:০২ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
সবদিক বঞ্চিত সেন্ট মার্টিন দ্বীপের বাসিন্দারা হাতির অভয়ারণ্য ধ্বংস, ১৩ হাতির মৃত্যু কেন্দ্রে প্রথমবার এড.সিরাজুল মোস্তফা, জেলার দায়িত্বে এড.ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী এড.সিরাজুল মোস্তফা আ.লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক হলেন খুরুশকুলে জলবায়ু উদ্বাস্তু পরিবারের জন্য আরও ১১৯টি ভবন নির্মাণের উদ্যোগ পেকুয়ায় ব্যক্তি উদ্যোগে কালভার্ট ও সড়ক সংস্কার জেলা ছাত্রলীগকে স্বাগত জানিয়ে কুতুবদিয়া ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল সবাই মিলে কাজ করলে শুঁটকি পল্লীতে শিশুশ্রম নিরসন করা অসম্ভব হবে না আইডিয়াল স্পোটিংসকে ২-১ গোলে হারিয়ে ব্রাদাস ফুটবল একাদশ চ্যাম্পিয়ন সোনাইছড়িতে আন্ত:ধর্মীয় সংলাপ অনুষ্ঠিত

ইয়াবা পাচার ও ব্যবসা বন্ধ হচ্ছে না রোহিঙ্গাদের কারণেই: র‌্যাব কমান্ডার

সিসিএন
  • আপডেট সময় সোমবার, ২৭ জুলাই, ২০২০
  • ৩৪ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক

নতুন করে আসা বিপুল সংখ্যক রোহিঙ্গাদের কারণে ইয়াবা ব্যবসা ও পাচার বন্ধ করা যাচ্ছে না। এছাড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পভিত্তিকে বেশ কয়েকটি ইয়াবা ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট তৈরি হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন র‌্যাব-১৫ অধিনায়ক উইং কমান্ডার মোহাম্মদ আজিম আহমেদ। রোববার (২৬ জুলাই) সকালে র‌্যাব-১৫ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়ে এ মন্তব্য করেন তিনি।

উইং কমান্ডার আজিম আহমেদ বলেন, গত ১৬ মাসে ইয়াবা মাদকের বিরুদ্ধে আমাদের অভিযান সবসময় অব্যাহত ছিল। আগামীতেও থাকবে। তবে দুঃখজনক হলেও সত্য, ইয়াবা ব্যবসা যে পরিমাণ কমার কথা কমেনি। বরং পাইকারি এবং খুচরা পর্যায়ে আরও বেড়েছে। এতে আমাদের প্রজন্ম ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। তাই আগামী প্রজন্মের স্বার্থে আমাদের সবাইকে মাদকের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ থেকে কাজ করতে হবে।

তিনি বলেন, মাদক ব্যবসা বাড়ার পেছনে রোহিঙ্গাদের বড় ভুমিকা আছে। এছাড়া দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে ইয়াবার চাহিদা বেড়ে যাওয়ার কারণে ইয়াবা পাচার বেড়েছে এবং বেশ কিছু জনপ্রতিনিধিসহ বিভিন্ন সেক্টরের কারণেও ইয়াবা ব্যবসা কমছে না।

১৬ ডিসেম্বরের মধ্যে মাদকমুক্ত করার বিষয়ে জেলা পুলিশের ঘোষণায় ঐক্যমত পোষণ করে উইং কমান্ডার আজিম উদ্দিন বলেন, আমরা সব সময় মাদক নির্মূলে কাজ করছি। আগামীতে সবার সাথে সহযোগিতা করে কাজ করতে চাই।

এ সময় সীমান্ত দিয়ে মাদক পাচার কমে আসলেও নতুন আসা রোহিঙ্গাদের মায়ানমারের সব পথঘাট জানা থাকায় তারা মাদক পাচার করছে উল্লেখ করে সাংবাদিকরা রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ফ্রি ওয়াইফাই ব্যবহার বন্ধ করা, মিয়ানমারের সিম ব্যবহার বন্ধ করা, মাদকের সাথে পৃষ্ঠপোষকতাকারি জনপ্রতিনিধি এবং রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের তালিকা প্রকাশ তৈরি করে তাদের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেওয়াসহ মায়ানমার সীমান্তে ইয়াবা কারখানা বন্ধে আর্ন্তজাতিকভাবে কাজ করা এবং গ্রাম পর্যায়ে অভিযান জোরদার করার দাবি তুলেন।

মতবিনিময় সভায় র‌্যাব-১৫ এর মেজর মেহেদী হাসান, সহকারী পুলিশ সুপার বিধান চন্দ কর্মকারসহ উর্ধ্বতন কর্মকর্তা, কক্সবাজার এবং উখিয়ার বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়ায় কর্মরত সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2019 | কক্সবাজার ক্রাইম নিউজ
Theme Customized By Shah Mohammad Robel