শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০, ০৫:১২ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
কালারমারছড়ার গৃহবধূ আফরোজা খুন: স্বামীর ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন শপিংমলগুলোতে পূজোর আমেজ, জমে উঠেছে বেচাকেনা চকরিয়ায় অপহৃত শিশু উদ্ধার, অপহরণকারী আটক ‘প্রাপ্তি কক্সবাজার লিঃ’ সংস্থার নামে সদস্যদের সাড়ে ১৯ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ কোনো শিশুকে ঝুঁকিপূর্ণ কাজে নিয়োগ না দেয়ার তাগিদ সীমান্তে বন্দুকযুদ্ধে ইয়াবা কারবারি নিহত : ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধার রামুতে মাটি কাটার সময় পাহাড় ধ্বসে ২ জন নিহত সৈকতে বাতিলকৃত প্লটে তরঙ্গ রেস্তোরাঁ’র অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ রামুর গর্জনিয়া যুবলীগ সভাপতি হাফেজ আহমদের উপর সন্ত্রাসী হামলা রামুতে ভুয়া ওয়ারিশ সনদে রেলের ক্ষতিপূরণের অর্থ আত্মসাতের চেষ্টা, ১০ জনের বিরুদ্ধে মামলা

ফের যুক্তরাষ্ট্রে কৃষ্ণাঙ্গকে পুলিশের গুলি, বিক্ষোভ-কারফিউ

সিসিএন
  • আপডেট সময় সোমবার, ২৪ আগস্ট, ২০২০
  • ৩৪ বার পঠিত

যুক্তরাষ্ট্রে পুলিশি হামলার শিকার হয়েছে আরও এক কৃষ্ণাঙ্গ। পুলিশ তাকে একের পর এক গুলি করলেও প্রাণে বেঁচে যান তিনি। বিবিসি জানায়, উইসকনসিন রাজ্যের কেনোশা শহরে রবিবার বিকেলে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনার একটি ভিডিও প্রকাশ্যে আসতেই শহরজুড়ে বিক্ষোভে নামে মানুষ। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কারফিউ জারি করা হয় কোনাশায়।

স্থানীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে, নিরস্ত্র ওই ব্যক্তিকে পুলিশ বেশ কয়েকটি গুলি করেছে, এরপর রবিবার সন্ধ্যায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

আহত ওই ব্যক্তিকে জ্যাকব ব্লেইক বলে শনাক্ত করেছেন উইসকনসিনের গভর্নর টনি এভাস।

এ ঘটনার প্রতিবাদে লোকজন ঘটনাস্থলে জড়ো হয়ে পুলিশের দিকে ইট-পাটকেল ও ককটেল ছুড়ে মারে।

এক বিবৃতিতে কেনোশার পুলিশ বিভাগ স্বীকার করে যে, কৃষ্ণাঙ্গকে গুলি করার ঘটনায় জড়িত ছিল পুলিশ।

রবিবার বিকেল ৫টায় ‘গৃহবিবাদের একটি ঘটনায়’ সাড়া দিতে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। এরপর গুলিবর্ষণের এ ঘটনা ঘটে।

বিবৃতিতে জানানো হয়, আহত হওয়ার পর ওই ব্যক্তির পাশে দাঁড়ায় পুলিশই, তৎক্ষণাৎ তাকে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া এক ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, একটি গাড়িতে ওঠার সময় জ্যাকবকে পেছন থেকে গুলি করে একজন পুলিশ কর্মকর্তা।

তবে কী কারণে ওই ব্যক্তিকে গুলি করা হয়েছে, সে বিষয়ে কোনো ব্যাখ্যা দেয়নি পুলিশ।

ঘটনায় ক্ষুব্ধ শহরবাসী রাস্তায় মিছিল করে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশিত ছবিতে দেখা যাচ্ছে, পুলিশের দিকে ইট-পাটকেল ও ককটেল ছুড়ে মারছে বিক্ষোভকারীরা।

এতে একজন পুলিশ কর্মকর্তা আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। শহরে বেশ কয়েক জায়গায় ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ পরদিন সোমবার সকাল ৭টা পর্যন্ত শহরজুড়ে কারফিউ জারি করে।

এর আগে ২৫ মে মিনেসোটা রাজ্যের মিনিয়াপোলিস শহরে পুলিশের নির্যাতনে শিকার হয় মৃত্যু হয় কৃষ্ণাঙ্গ যুবক জর্জ ফ্লয়েডের। এরপর দেশটি জুড়ে বর্ণবাদ বিরোধী বিক্ষোভ শুরু হয়। পুরো বিশ্বে সে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2019 | কক্সবাজার ক্রাইম নিউজ
Theme Customized By Shah Mohammad Robel