শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০, ০৫:৩৫ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
কালারমারছড়ার গৃহবধূ আফরোজা খুন: স্বামীর ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন শপিংমলগুলোতে পূজোর আমেজ, জমে উঠেছে বেচাকেনা চকরিয়ায় অপহৃত শিশু উদ্ধার, অপহরণকারী আটক ‘প্রাপ্তি কক্সবাজার লিঃ’ সংস্থার নামে সদস্যদের সাড়ে ১৯ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ কোনো শিশুকে ঝুঁকিপূর্ণ কাজে নিয়োগ না দেয়ার তাগিদ সীমান্তে বন্দুকযুদ্ধে ইয়াবা কারবারি নিহত : ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধার রামুতে মাটি কাটার সময় পাহাড় ধ্বসে ২ জন নিহত সৈকতে বাতিলকৃত প্লটে তরঙ্গ রেস্তোরাঁ’র অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ রামুর গর্জনিয়া যুবলীগ সভাপতি হাফেজ আহমদের উপর সন্ত্রাসী হামলা রামুতে ভুয়া ওয়ারিশ সনদে রেলের ক্ষতিপূরণের অর্থ আত্মসাতের চেষ্টা, ১০ জনের বিরুদ্ধে মামলা

টেকনাফে সমুদ্রে অপহৃত সাত জেলে উদ্ধার, অস্ত্রসহ পাচঁ রোহিঙ্গা ডাকাত আটক-জব্দ একটি কাঠের ট্রলার

সিসিএন
  • আপডেট সময় সোমবার, ১২ অক্টোবর, ২০২০
  • ৮ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক

মিয়ানমার থেকে এসে টেকনাফ সমুদ্র থেকে অপহৃত সাত জেলেকে উদ্ধার করেছে বাংলাদেশ কোস্ট গার্ড সদস্যরা। আটককৃত ডাকাতদলের সদস্যরা হলেন, মায়ানমারের আকিয়াব জেলার আড়িপাড়া অঞ্চলের বাসিন্দা মোঃ বাকগুল্লা (২২),মোঃ শুকুর(২০), রবি আলম(২২), নুরুল আমিন(৩০) ও শফি আলম(২০)।

টেকনাফ কোস্টগার্ড বিসিজি স্টেশান কর্মকর্তা লে. কমান্ডার আমিরুল হক বলেন, ১২ অক্টোবর ভোররাতে নেতেৃত্বে নিয়মিত টহলে থাকাকালীন টেকনাফ উপজেলার বাহারছড়া ইউনিয়নের নোয়াখালীপাড়া হতে ১২ নটিক্যাল মাইল দূরে সমুদ্র থেকে ৫জন অস্ত্রধারী ডাকাতকে আটক করে। এসময় তাদের নৌকা হতে ৭জন বাংলাদেশী জেলেকে বাঁধা অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারকৃত জেলেরা সকলেই টেকনাফের নোয়াখালীপাড়ার বাসিন্দা। এসময় অপহরণকারীরা কোস্টগার্ডের উপর লম্বা কিরিচ ছুড়ে। এতে কোস্টগার্ডের এক সদস্য আহত হয়ে সুমদ্রে পরে যায়।

কোস্টগার্ডের এ কর্মকর্তা বলেন, ‘পরে কোস্টগার্ডও আত্মরক্ষার্থে দুই রাউন্ড গুলি চালায়। একপর্যায়ে ট্রলারসহ অপহরণকারীদের আটক করে। তাদের স্বীকারুক্তিতে নৌকাটি তল্লাশী করে ২টি দেশীয় একনলা বন্দুক, ৮ রাউন্ডস কার্তুজ, ১০টি বিভিন্ন ধরনের বার্মিজ ধারালো অস্ত্র ও ১টি ইঞ্জিন চালিত কাঠের নৌকা জব্দ করা হয়। পরবর্তীতে উক্ত অভিযানে উদ্ধারকৃত বাংলাদেশী জেলেদের ডুবে যাওয়া একটি নৌকা উদ্ধার করা হয়েছে। আটককৃত ডাকাত, উদ্ধারকৃত জেলে এবং  জব্দকৃত অস্ত্র ও অন্যান্য মালামাল পরবর্তী কার্যক্রমের জন্য টেকনাফ মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। বাংলাদেশ কোস্ট গার্ড এর আওতাভুক্ত এলাকাসমূহে আইন শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রন, জননিরাপত্তার পাশাপাশি বনদস্যুতা, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন ও ডাকাতি দমন রোধে কোস্ট গার্ডের জিরো টলারেন্স নীতি অবলম্বন করে, নিয়মিত অভিযান অব্যাহত আছে এবং ভবিষ্যতেও থাকবে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2019 | কক্সবাজার ক্রাইম নিউজ
Theme Customized By Shah Mohammad Robel