রবিবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২১, ১২:৩১ অপরাহ্ন

বাইশারীতে পাথর বোঝাই ৩০ টনের ট্রাক চলাচলে ধ্বসে গেল ৩কিলোমিটার সড়ক

সিসিএন
  • আপডেট সময় বুধবার, ২৮ অক্টোবর, ২০২০
  • ১৯ বার পঠিত

পার্বত্য জেলা বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারীতে গ্রামীণ সড়কে উন্নয়নের জন্য আনা পাথর বোঝাই করা ৩০ টনের ভারী যানবাহন চলাচলের কারণে প্রায় ৩ কিলোমিটার সড়কের বিভিন্ন জায়গায় ধ্বসে গেছে। এক বছরের মাথায় ধ্বসে গেছে কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত বাইশারী টু নারিচ বুনিয়ার জনগুরুত্বপূর্ণ সড়কটি।

গত বছর খানেক আগে কোটি টাকা ব্যায়ে নির্মাণ কাজ শেষ করা হয় এলজিইডি নাইক্ষ্যংছড়ির অধীনে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। একই সড়কের আবারও বাকী কাজ শেষ করতে ভারী যানবাহন দিয়ে মালামাল বহন করায় সড়কটি ধ্বসে যায়। বিষয়টি স্থানীয় লোকজনের নজরে আসায় তাৎক্ষণিকভাবে বিষয়টি উপজেলা ও জেলা নির্বাহী প্রকৌশলীকে অবগত করেন।

২৮ অক্টোবর (বুধবার) সকালে সরজমিন গিয়ে দেখা যায়, উপজেলার বাইশারী ইউনিয়নের জনগুরুত্বপূর্ণ সড়ক বাইশারীর নারিচবুনিয়া ভায়া বাঁকখালী সড়কটি । এক বছর আগে সড়কটি কার্পেটিং দ্বারা উন্নয়ন করা হয়। কিন্ত সড়কের বাকি অংশ কার্পেটিং করতে ভারী যানবাহন নিয়ে পাথর ও অন্যান্য মালামাল বহন করায় ৩ কিলোমিটার কার্পেটিং সড়ক বিভিন্ন জায়গায় ধ্বস ও ফাটল দেখা দেয়।

জনতার রোষানলে ৩০ টনের ১৩ টি ট্রাক বটতলী বাজারে আনলোড করতে বাধ্য হয়। জানা গেছে, ঠিকাদার ভুট্টো ও মনসুর এই ভারী যানবাহন নিয়ে মালামাল এনে পুরো সড়কটি ধংস করে ফেলে।

স্থানীয় বাসিন্দা আবদুল জব্বার, মোঃ হাবিব সহ অনেকেই জানান তাদের নিষেধ করা সত্বে ও কর্নপাত করেনা। তবে অন্যান্য ঠিকাদারেরা ভারী যানবাহনের মালামাল বাজারের পাশে খালাস করে হালকা যানবাহনে করে গন্তব্য স্থানে নিয়ে যায়।

ঠিকাদার জসিম উদ্দিন বলেন, সড়কে ভারী যানবাহন ঢুকিয়ে সড়কে ধ্বসে যাওয় এবং ফেটে যাওয়ার বিষয়টি জেলা নির্বাহী প্রকৌশলীর নিকট অবগত করেছেন। কারন এর দায়ভার আমরা নিতে পারবনা।

ঠিকাদার ভুট্টো ও মনসুর বলেন, সড়কটি নির্মাণ করা হয়েছে যানবাহন চলাচলের জন্য। ভারী যানবাহনের বিষয়ে জানতে চাইলে ভারী যানবাহন নিয়ে মালামাল পরিবহন করেননি বলে অস্বীকার করেন। হালকা ১০ টনের ট্রাক নিয়ে মালামাল পরিবহন করেছেন বলে জানান। গ্রামীণ সড়কের উপর দিয়ে এত ভারী যানবাহন চলাচলের ফলে সরকারের কোটি কোটি টাকার উন্নয়ন ধ্বংস হয়ে পড়েছে।

বাইশারী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. আলম বলেন, জনগুরুত্বপূর্ণ সড়কটি ভারী যানবাহন ঢুকিয়ে ধ্বংস করে দেয়ায় তিনি ও উদ্বিগ্ন। বিষয়টি কতৃপক্ষের নিকট অবগত করবেন।

ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি মো. আবুল কালাম জানান ঠিকাদার ভুট্টো ও মনসুর ইচ্ছে করে ভারী যানবাহন ঢুকিয়ে রাস্তাটা ধ্বংস করে দিয়েছে। বিষয়টি জেলা নির্বাহী প্রকৌশলীকে জানিয়েছেন।

নাইক্ষ্যংছড়ি এলজিইডি উপজেলা সহকারী প্রকৌশলী রেজাউল করিম বলেন, তিনি সরজমিন পরিদর্শন করেছেন এবং উর্ধতন কতৃপক্ষের নিকট জানিয়েছেন। উক্ত সড়কটি পুনরায় নির্মাণ করা হবে।

বান্দরবান এল জি ইডির নির্বাহী প্রকৌশলী জিল্লুর রহমান বলেন, ধ্বসে যাওয়া এবং ফেটে যাওয়ার বিষয়টি অবগত রয়েছেন। ঠিকাদার ওই জায়গা গুলো পুনরায় ঠিক করে দিবেন। গ্রামীন সড়কে ১০ টনের অধিক মালামাল নিয়ে যানবাহন চলাচল করা যাবেনা বলে ও তিনি জানান।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2019-2020 | কক্সবাজার ক্রাইম নিউজ
Theme Customized By Shah Mohammad Robel