শনিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২০, ১০:৫০ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম

বঙ্গবন্ধু খুনের নেপথ্য নায়কদের খুঁজতে কমিশন হচ্ছে

সিসিএন
  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০২০
  • ১৮ বার পঠিত

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার নেপথ্য নায়কদের খুঁজে বের করতে কমিশন গঠন করা হচ্ছে। কমিশন গঠনের প্রক্রিয়া নিয়ে আলোচনা চলছে বলেও জানান তিনি।

বৃহস্পতিবার (১৯ নভেম্বর) জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত আসনের সদস্য মনিরা সুলতানার প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ তথ্য জানান।

মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুর খুনের সঙ্গে জড়িত দেশি-বিদেশি নেপথ্য নায়কদের খুঁজে বের করতে কমিশন গঠন করা হবে। ইতোমধ্যে কমিশন গঠনের প্রক্রিয়া নিয়ে আলোচনা করা হচ্ছে। কমিশন কাদের নিয়ে কীভাবে গঠিত হবে। কমিশনের কাজের পরিধি কী হবে তা নির্ধারণে সংশ্লিষ্টরা কাজ করে যাচ্ছেন।

বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলার রায়ের প্রসঙ্গ টেনে আনিসুল হক বলেন, সম্পূর্ণ নিরপেক্ষভাবে প্রচলিত আইনে এবং প্রচলিত আদালতেই হত্যাকারীদের বিচারের ব্যবস্থা করা হয়। বিচার প্রক্রিয়া শেষ করে হত্যাকারীদের সাজা ইতোমধ্যে কার্যকর করা হয়েছে। তবে এখনো যেসব খুনি বিভিন্ন দেশে পালিয়ে এবং আশ্রয় গ্রহণ করে আছে তাদের দেশে ফিরিয়ে আনার সব প্রচেষ্টা অব্যাহত আছে।

মন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার বিচারপ্রার্থী জনগণের ভোগান্তি লাঘবে সঠিক বিচারের নিশ্চয়তা প্রদান করে দেশের আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। ধনী, গরিব, নির্বিশেষে সবার জন্য সমতার ভিত্তিতে সুবিচার নিশ্চিত করা এবং বিচার ব্যবস্থায় দৃশ্যমান উন্নয়ন সাধন করে সমাজে ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠায় সরকার বদ্ধপরিকর।

বর্তমান সরকারের আমলে সরকারি কর্মকমিশন (বিপিএসসি) বিসিএস ক্যাডার পদেসহ দ্বিতীয় ও তদূর্ধ্ব শ্রেণিতে মোট ৭৪ হাজার ৮৭৮ জনকে নিয়োগের সুপারিশ করেছে।

ভোলা-২ আসনের আলী আজমের এ সম্পর্কিত প্রশ্নের জবাবে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফারহাদ হোসেন বলেন, বর্তমান সরকার দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে বর্তমান পর্যন্ত ২৮তম থেকে ৩৮তম বিসিএস পরীক্ষায় ৩৫ হাজার ৬০৩ জন প্রার্থীকে ক্যাডার পদে নিয়োগের সুপারিশ করা হয়েছে। এছাড়া প্রথম শ্রেণির নন-ক্যাডার পদে চার হাজার ২৫ জন, দ্বিতীয় শ্রেণির (১০তম, ১১তম ও ১২তম গ্রেড) পদে ৫ হাজার ৭৫৪ জনকে নিয়োগের সুপারিশ করেছে। এছাড়াও বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগের চাহিদার প্রেক্ষিতে ৯ম তদূর্ধ্ব এবং ১০ গ্রেডের বিভিন্ন নন-ক্যাডার পদে ৩২ হাজার ৪৯৬ জনকে নিয়োগের সুপারিশ করেছে।

সরকারি দলের এ কে এম রহমতুল্লাহর প্রশ্নের জবাবে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম জানান, বাংলাদেশ জাতীয় চিড়িয়াখানায় বর্তমানে ১৩৩ প্রজাতির প্রাণী, পাখি ও দৃষ্টিনন্দন একুরিয়াম ফিশ রয়েছে। এর মোট সংখ্যা দুই হাজার ৭২২টি।

মন্ত্রীর তথ্য মতে, চিড়িয়াখানায় ১৭ প্রজাতির ৩৮২টি বৃহৎ প্রাণী (তৃণভোজী), ১১ প্রজাতির ৩৬টি মাংশাসী, ১৩ প্রজাতির ১৫২টি ক্ষুদ্র স্তন্যপায়ী, ৯ প্রজাতির ৬৯টি সরীসৃপ প্রাণী, ৫৭ প্রজাতির ১ হাজার ১৩৭টি পাখি এবং ২৬ প্রজাতির ৯৪৬টি একুরিয়াম ফিশ রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2019 | কক্সবাজার ক্রাইম নিউজ
Theme Customized By Shah Mohammad Robel