উখিয়ার পাহাড় থেকে দুইজন অপহৃত ভিকটিমক উদ্ধার,আটক-২

আব্দুস সালাম,টেকনাফ

উখিয়া থানাধীন থাইংখালী পাহাড়ি এলাকা থেকে দুইজন অপহৃত ভিকটিমকে উদ্ধারসহ অপহরণকারী চক্রের দুইজন সদস্যকে র‌্যাব-১৫ আটক করেছে।

কক্সবাজার র‌্যাব-১৫ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ও সিনিয়র সহকারী পরিচালক (ল’ এন্ড মিডিয়া) মোঃ আবু সালাম চৌধুরী
গণমাধ্যমকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।
তিনি জানান,র‌্যাব-১৫, কক্সবাজার এর সিপিসি-২ হোয়াইক্যং ক্যাম্পে জনৈকা মহিলা অভিযোগ দায়ের করে যে, তার স্বামী
উখিয়া রাজাপালং ক্যাম্প নং-৭,এফসিএন নং-১৩৫২৮৬, ব্লক-বি/১ এর বাসিন্ধা মৃত নজির আহমদ ছেলে নুর মোহাম্মদ (৪২)(এফডিএমএন) এবং ভিকটিমের ভাগিনা কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্প,ব্লক-বি/১, ক্যাম্প-৭ এর বাসিন্ধা মৃত মোহাম্মদ হোসেনের ছেলে আব্দুল মালেক (২৭)(এফডিএমএন) কে গত ২৮ অক্টোবর অনুমানিক সকাল সাড়ে ৮ টার দিকে বর্ণিত ব্যক্তিরা উখিয়া থানাধীন পালংখালী ইউপিস্থ সফিউল্লাহকাটায় ব্যক্তিগত কাজে যাওয়ার উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বের হয়। পথিমধ্যে ভিকটিমদ্বয়কে উখিয়া পালংখালী ৭নং ওয়ার্ডের মৃত নুরুল ইসলামের ছেলে সাইফুল ইসলাম (২৫), একই এলাকার মৃত মোজাহার মিয়া
মোঃ আইয়ুব (৩৫) ও অজ্ঞাতনামা আরো ৭/৮ জনের সহায়তায় অপহরণ করে চোখ বেঁধে জোরপূর্বক টেনে হিচরে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। পরবর্তীতে একদিন রাত সাড়ে ৮ টার দিকে তার স্বামীর মোবাইল নম্বর হতে তার মোবাইল নম্বরে ফোন করে জানায়, নুর মোহাম্মদ ও তার ভাগিনা অপহৃত হয়েছে এবং মুক্তিপণ বাবদ ১ লক্ষ টাকা দাবি করে। এছাড়া মুক্তিপণ না দিলে ভিকটিমদ্বয়কে খুন করে লাশ গুম করে ফেলার হুমকিসহ বিভিন্ন রকম ভয়ভীতি প্রদান করে।
উক্ত অভিযোগের ভিত্তিতে র‌্যাব-১৫ এর সিপিসি-২, হোয়াইক্যং ক্যাম্প বিভিন্ন রকম গোয়েন্দা কার্যক্রম জোরদার করে এবং অপহৃত ভিকটিমদ্বয়কে উদ্ধারসহ অপহরণকারীদের আটক করতে গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধি করে। পরবর্তীতে ১ নভেম্বর দুপুর ২ টার দিকে উখিয়া থানাধীন পালংখালী ইউপিস্থ থাইংখালী কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের বিপরীত পার্শ্বে কক্সবাজার-টেকনাফ সড়কের পূর্ব পার্শ্বস্থ পাকা রাস্তার নিকট থেকে বর্ণিত
১নং ও ২নং আসামীকে আটক করতে সক্ষম হয়। ধৃত ব্যক্তিদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে উখিয়া থানাধীন পালংখালী ইউপিস্থ থাইংখালী কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ সংলগ্ন কবরস্থানের উত্তরে অন্ধকার স্থান থেকে ভিকটিমদ্বয়কে উদ্ধার করে।

তিনি আরো জানান,উদ্ধারকৃত ভিকটিমদ্বয় ও আটককৃত অপহরণকারী দ্বয়কে উখিয়া থানায় পরবর্তি আইনানুগ কার্যক্রম সম্পন্ন করার জন্য হস্তান্তর করা হয়। উল্লেখিত ঘটনার বিষয়ে উখিয়া থানায় অপহরণকারী চক্রের বিরুদ্ধে একটি নিয়মিত মামলা রুজু হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *