গবেষণা লব্ধ জ্ঞানকে দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে কাজে লাগাতে হবে : প্রধানমন্ত্রী

দেশকে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে আরও এগিয়ে নিতে গবেষণায় গুরুত্ব দেওয়ার তাগিদ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, বিজ্ঞান-প্রযুক্তির এই উন্নত যুগে যেসব দেশ বৈজ্ঞানিক গবেষণায় এগিয়ে যাচ্ছে, তারাই অর্থনৈতিকভাবে দ্রুত উন্নতি করতে পারছে। কাজেই আমাদের উন্নতি করতে হলে পরে অবশ্যই গবেষণা একান্তভাবে প্রয়োজন।

বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) সকালে নবনির্মিত জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি কমপ্লেক্সের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি আগারগাঁও জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি কমপ্লেক্স প্রান্তে যুক্ত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী।

সরকারের বিভিন্ন মেয়াদে বিজ্ঞান গবেষণা ও প্রযুক্তি খাতে উন্নয়নের লক্ষ্যে বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা একটা জায়গায় একটু পিছিয়ে আছি। সেটা হচ্ছে স্বাস্থ্যবিষয়ে গবেষণাটা আমাদের দেশে খুব কম হচ্ছে। খুব কম চিকিৎসক আছে, আসলে তারা রোগীর সেবা দিতেই যতটা আগ্রহী, ঠিক ততটা আগ্রহ গবেষণার দিকে নেই। হাতেগোনা কয়েকজনেই নিয়মিত গবেষণা করেন।

‘এক্ষেত্রে আমরা পদক্ষেপ নিচ্ছি, আমাদের স্বাস্থ্য বিষয়ে গবেষণাটা একান্তভাবে দরকার। তবে অন্যান্য গবেষণায় এখন আমরা যথেষ্ট এগিয়ে যাচ্ছি। আমাদের এগিয়ে যেতেই হবে।’

মৌলিক গবেষণার পাশাপাশি প্রায়োগিক গবেষণার ওপর জোর দিতে সংশ্লিষ্ট গবেষকদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

গবেষণা ছাড়া উৎকর্ষতা লাভ করা যায় না জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যমাত্র অর্জন করতে গেলে আমাদের গবেষণা একান্তভাবে দরকার। কাজেই আমাদের সবাইকে একটু গবেষণার দিকে নজর দেওয়া দরকার।’

‘তাছাড়া আমাদের দেশীয় সম্পদ যা আছে, আমাদের অনেক অমূল্য সম্পদ রয়ে গেছে, যা এখনো আমরা ব্যবহার করতে পারিনি বা ধরাছোঁয়ার বাইরে। সেইগুলো আমাদের খুঁজে বের করতে হবে এবং তার ওপর গবেষণা করতে হবে। সেগুলো যাতে আমাদের দেশের মানুষের কাজে লাগে- এ বিষয়ে আমাদের বিশেষভাবে দৃষ্টি দিতে হবে।’

প্রতিনিয়ত সারাবিশ্বব্যাপী বিজ্ঞানের প্রভাব বেড়েছে, প্রযুক্তি ব্যবহারের প্রভাব বেড়েছে উল্লেখ করে সরকার প্রধান বলেন, এই বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে গেলে আমাদেরকেও বিশেষভাবে দৃষ্টি দিয়ে গবেষণায় সবসময় নজর দিতে হবে। আমরা আজকে এগিয়ে যেতে পেরেছি গবেষণালব্ধ জ্ঞান ব্যবহার করতে পেরেছি বলেই। প্রযুক্তির ব্যবহার আমরা বৃদ্ধি করতে পেরেছি।  যার ফলে মানুষ আজকে উন্নত জীবন পাচ্ছে।

নবনির্মিত জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি কমপ্লেক্সের উদ্বোধনের বিষয়টি তুলে ধরে তিনি বলেন, আজকে অনেক দিনের প্রচেষ্ঠার একটা ফসল হচ্ছে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি কমপ্লেক্স ভবন। আসলে একটা জায়গা দরকার হয় সবসময়, যেখানে আমাদের সবাই বসে গবেষণা করতে পারবে।

করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট দেখা দিয়েছে এবং এই ভ্যারিয়েন্টটা দ্রুত ছড়াচ্ছে জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, সবাইকে স্বাস্থ্য সুরক্ষা মেনে চলতে হবে। ইতোমধ্যেই যেসব নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে সেগুলো সবাইকে মানতে হবে। আর যারা ভ্যাকসিন নেননি তাদের দ্রুত ভ্যাকসিন নেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী ইয়াফেস ওসমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরের মহাপরিচালক মোহাম্মদ মুনির চৌধুরী।

Leave a Reply

Your email address will not be published.