ধাওয়া খেয়ে গরু ফেলে পালালো চোর

রামু প্রতিনিধি:

রামুতে আবারো গোয়াল ঘরে হানা দিয়েছে চোরের দল। জনতার ধাওয়া খেয়ে গরু ফেলে পালিয়ে যায় চোরেরা। এসময় জনতার হাতে গনধোলাইয়ের শিকার হয়েছেন এক যুবক। রবিবার, ২২ জানুয়ারি দিবাগত রাত ৩টার দিকে রামু উপজেলার ফতেখাঁরকুল ইউনিয়নের পশ্চিম মেরংলোয়া গ্রামে এ ঘটনা। এ ঘটনায় রামু থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ওই এলাকার ফকির মোহাম্মদের স্ত্রী তাহেরা বেগম। সোমবার, বিকালে রামু থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।

গৃহকত্রী তাহেরা বেগম জানান- তিনি বিভিন্ন সংস্থা থেকে ঋন নিয়ে দেশীয় গরু লালন-পালন করেন। রবিবার দিবাগত রাতে সংঘবদ্ধ চোর তার বাড়ির পাশর্^বর্তী গোয়ালঘরের টিনের দরজা ভেঙ্গে প্রবেশ করে। এসময় শব্দ শুনে ঘুম ভেঙ্গে দেখতে পান চোরের দল তার গরু নিয়ে যাচ্ছে। এসময় তিনি আর্তচিৎকার দিলে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসে। এসময় চোরের দল তার গোয়াল ঘর থেকে লুট করা দুটি গরু ফেলে পালিয়ে যায়। এসময় জনতার হাতে মারধরের শিকার হন গরু চুরিতে জড়িত সাইফুল ইসলাম বাদল নামের এক যুবক। তিনি একই এলাকার নবু আলমের ছেলে। এ ঘটনায় সোমবার গরু চুরিতে জড়িত সাইফুল ইসলাম বাদল ও শওকত আলম সহ অজ্ঞাত ৩/৪ জনকে অভিযুক্ত করে রামু থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

তাহেরা বেগম আরো জানান- পরদিন সোমবার গরু চুরি করতে এসে জনতার হাতে মারধরের শিকার সাইফুল ইসলাম বাদল এ ঘটনায় মামলা না করার জন্য হুমকী দেন। এমনিক মামলা করলে তাহেরা বেগমের বসত বাড়িতে হামলা এবং উল্টো মিথ্যা মামলা জড়িয়ে হয়রানির হুমকী দেন।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে রামু থানার এএসআই আশরাফুল জানান- গরু চুরির বিষয়টি পুলিশ গুরুত্বের সাথে দেখছে। এ ঘটনায় তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: