বাংলাদেশের মেধাসম্পদ পৃথিবীব্যাপী দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে : টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, বাংলাদেশের মেধাসম্পদ আজ পৃথিবীব্যাপী দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।
ডিজিটাল বাংলাদেশ কর্মসূচির সফলতার হাত ধরে প্রযুক্তিতে ৩২৪ বছর পিছিয়ে থাকা এই দেশ পৃথিবীর কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে উল্লেখ করে তিনি ৫ম শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় ডিজিটাল যুগের উপযোগী দক্ষ মানব সম্পদ তৈরিতে সরকারের পাশাপাশি প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন।
মোস্তাফা জব্বার আজ বৃহসাপতিবার রাজধানীতে চীনের প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ের বাংলাদেশ নামে নলেজ শেয়ারিং সেন্টার’র উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ আহ্বান জানান।
ডাক ও টেলিযোগাযোগ সচিব মো. খলিলুর রহমান, বিটিআরসি’র চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদার, বিডার নির্বাহী চেয়ারম্যান লোকমান হোসেন মিয়া, বাংলাদেশে চীনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিং এবং হুয়াওয়ে বাংলাদেশের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা প্যান জুনফেং এ অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন।
কম্পিউটারে বাংলা ভাষার উদ্ভাবক মোস্তাফা জব্বার হুয়াওয়েকে ডিজিটাল প্রযুক্তি উদ্ভাবন ও বিকাশের সেন্টার অব এক্সিলেন্স হিসাবে অভিহিত করে বলেন, রিসার্স ও ডেভেলপমেন্টে হুয়াওয়ের অবদান ডিজিটাল প্রযুক্তিতে অবিস্মরণীয় হয়ে থাকবে।
তিনি সুইজারল্যান্ডে বিশ্ব মেধাসত্ত্ব সংস্থা (ডব্লিউআইপিও) পরিদর্শন ও প্রতিষ্ঠানটি কর্মকর্তাদের সঙ্গে অভিজ্ঞতা বিনিময়কালে অর্জিত ধারণা তুলে ধরে বলেন, সারা দুনিয়ায় প্যাটেন্ট রেজিস্ট্রেশনের জন্য যে আবেদন জমা পড়েছে তার প্রায় দেড়গুণ বেশি আবেদন হুয়াওয়ে একাই করেছে। মন্ত্রী বাংলাদেশে হুয়াওয়ের প্রশিক্ষণ কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করার জন্য হুয়াওয়ে কতৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানান।
অনুষ্ঠানে বক্তারা ডিজিটাল প্রযুক্তি বিকাশ এবং দক্ষমানব সম্পদ তৈরিতে হুয়াওয়ের এই উদ্যোগ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
এর আগে মন্ত্রী ‘হুয়াওয়ে বাংলাদেশ নামে নলেজ শেয়ারিং সেন্টারের’ উদ্বোধন করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *