মায়ের মরদেহ বাড়িতে রেখে পরীক্ষার হলে দুই বোন

কক্সবাজারের টেকনাফে মায়ের মরদেহ বাড়িতে রেখে মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছেন সাদিয়া ফেরদৌস ও শারমিন আকতার নামে দুই বোন। মঙ্গলবার (২ মে) বাংলা ২য় পত্রের পরীক্ষার দিন এই হৃদয়বিদারক ঘটনা ঘটে।

সাদিয়া ও শারমিন সাবরাং ইউনিয়নের পানছড়ি পাড়া এলাকার জহির আহমদের মেয়ে এবং সাবরাং উচ্চ বিদ্যালয়ের মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থী। টেকনাফ উপজেলা সদরের এজাহার সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় পরীক্ষাকেন্দ্রে তারা পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন।

দুই শিক্ষার্থীর চাচাতো ভাই রবিউল বলেন, আমার বড় আম্মু রমজান মাস থেকেই শারীরিক অসুস্থতায় ভুগছিলেন। অবস্থার অবনতি হলে সোমবার রাতে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে রাত সাড়ে ৩টার দিকে তিনি মারা যান।

শিক্ষার্থীদের বাবা জহির আহমদ বলেন, যেখানে একদিন আগেও মেয়েরা উৎসাহ-উদ্দীপনা নিয়ে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছিল, হঠাৎ মানসিকভাবে এত বড় ধাক্কায় কীভাবে বাকি পরীক্ষাগুলো দেবে একমাত্র আল্লাহ ভালো জানেন।

পরীক্ষাকেন্দ্রের দায়িত্বরত শিক্ষকরা জানিয়েছেন, পরীক্ষার পুরো সময়টাই দুই বোন কান্না করেছেন। তাদেরকে সান্ত্বনা দিয়ে আজকের পরীক্ষা সম্পন্ন করতে পেরেছি।

টেকনাফ উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. কামরুজ্জামান বলেন, দুই পরীক্ষার্থীর মায়ের মৃত্যু সত্যিই বেদনাদায়ক। তাদেরকে মানসিকভাবে সহযোগিতা করার জন্য কেন্দ্রসচিবকে অবহিত করা হয়েছে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: