রায়ে প্রত্যাশা পূরণ হয়েছে, সিনহার বোনের সন্তুষ্টি

বহুল আলোচিত মেজর (অব.) সিনহা মো. রাশেদ খান হত্যা মামলায় প্রধান দুই আসামির মৃত্যুদণ্ড হওয়ায় এবং আরও ছয়জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হওয়ায় সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন মামলার বাদী সিনহার বড় বোন শারমিন শাহরিয়া ফেরদৌস।

আজ সোমবার বিকেলে রায় ঘোষণার পর শারমিন শাহরিয়া ফেরদৌস এনটিভি অনলাইনকে সন্তুষ্টি প্রকাশ করে বলেন, মামলার প্রধান দুই আসামির সর্বোচ্চ শাস্তি হয়েছে। এতে আমাদের প্রত্যাশা পূরণ হয়েছে। তবে তিনি এও বলেন, যে সাতজনকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়েছে, তাদেরও তো দায়বদ্ধতা ছিল। আদালত তাদেরও সাজা দিতে পারতেন। আমাদের সন্তুষ্টি সে দিনই হবে, যেদিন এই রায় কার্যকর হবে।

এর আগে আজ বিকালে কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ ইসমাইল এ মামলায় ওসি প্রদীপ কুমার দাশ ও পরিদর্শক মো. লিয়াকত আলীর মৃত্যুদণ্ড এবং ছয়জনের যাবজ্জীবন ও সাতজনকে খালাস দেন।

যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া আসামিরা হলেন বাহারছড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের উপপরিদর্শক (এসআই) নন্দ দুলাল রক্ষিত (৩০), কনস্টেবল সাগর দেব, ওসি প্রদীপের দেহরক্ষী রুবেল শর্মা (৩০), স্থানীয় বাসিন্দা বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুরের মারিশবুনিয়া গ্রামের মো. নুরুল আমিন (২২), মো. নিজাম উদ্দিন (৪৫) ও মোহাম্মদ আইয়াজকে (৪৫)।

অপরদিকে খালাসপ্রাপ্তরা হলেন সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) মো. লিটন মিয়া (৩০), কনস্টেবল ছাফানুর করিম (২৫), মো. কামাল হোসাইন আজাদ (২৭), মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন, এপিবিএনের এসআই মো. শাহজাহান আলী (৪৭), কনস্টেবল মো. রাজীব হোসেন (২৩) ও আবদুল্লাহ আল মাহমুদ (২০)।

Leave a Reply

Your email address will not be published.