লুঙ্গি পরায় হোটেল ওশান প্যারাডাইসে পর্যটক লাঞ্ছিত

পর্যটন শহর কক্সবাজারের তারকা মানের হোটেল ওশান প্যারাডাইসে লুঙ্গি পরে ঢুকতে গিয়ে লাঞ্ছিত হয়েছেন জাহিদ হাসান নামে পঞ্চাশোর্ধ বয়সী পর্যটক।

পরে টুরিস্ট পুলিশের সহায়তায় রুমে ঢুকেছেন তিনি।

এ সময় তার সঙ্গে স্ত্রী, মেয়ে, জামাতাসহ অনেকে ছিল।

শুক্রবার (৫ আগস্ট) রাত ৯ টার দিকে এই ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী পর্যটক জাহিদ হাসান ঢাকার বাসিন্দা।

তিনি বলেন, আমি ওশান প্যারাডাইসের গেষ্ট। সমুদ্র সৈকত থেকে ঘুরে লুঙ্গি পরে হোটেলে ঢোকার পথে কর্তৃপক্ষ আমাকে বাধা দেয়। প্রায় এক ঘন্টা বাইরে দাঁড় করিয়ে রাখে।

শত চেষ্টা করেও আমাকে রুমে ঢুকতে দেয়নি অভ্যর্থনা ডেস্কের আল আমিন হৃদয় ও সিকিউরিটি গার্ড কাউসার আহমেদ আবছার।

বিষয়টি তাৎক্ষণিক ট্যুরিস্ট পুলিশকে অভিযোগ করলে তাদের সহায়তায় রুমে প্রবেশ করি। এটি একজন পর্যটক হিসেবে আমার জন্য খুবই অপমানজনক আচরণ।

অভ্যর্থনা ডেস্কের দায়িত্বে থাকা আল আমিন হৃদয় পর্যটকের সাথে কোন খারাপ ব্যবহার করেন নি দাবি করেন।

তবে তিনি এটা স্বীকার করেছেন, লুঙ্গি পরে হোটেলে থাকার বিষয়ে কর্তৃপক্ষের মৌখিক নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।

এবিষয়ে জানতে চাইলে ট্যুরিস্ট পুলিশ কক্সবাজার জোনের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রেজাউল করিম বলেন, এরকম একটি অভিযোগ শোনার পর ট্যুরিস্ট পুলিশের টিম ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়। তারা হোটেল কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলে সতর্ক করেন। পরবর্তীতে এমন ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটলে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পর্যটকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ট্যুরিস্ট পুলিশ সদা তৎপর বলে জানান মো. রেজাউল করিম।

তবে, পর্যটক লঞ্ছিত হওয়ার বিষয়টি অস্বীকার করেন হোটেলের ব্যবস্থাপক (অপারেশন) কাজী আনিসুজ্জামান।

তিনি বলেন, লুঙ্গি পরে লবিতে হাটাহাটি করায় একটু সতর্ক করেছিলাম। এরচেয়ে বেশি কিছু হয়নি।

হোটেলে পর্যটকদের লুঙ্গি পরার বিষয়ে কোন বিধিনিষেধ আছে কিনা জানতে চাইলে সঠিক উত্তর দিতে পারেননি হোটেলটির ওই কর্মকর্তা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.