রবিবার, ০৭ মার্চ ২০২১, ০৮:৫০ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম

চকরিয়ার সেই ‘যুবলীগ’ নেতা বহিষ্কার

সিসিএন
  • আপডেট সময় বুধবার, ১২ আগস্ট, ২০২০
  • ৮২ বার পঠিত

চকরিয়া আরেক ‘প্রতারক’ যুবলীগ নেতা মিজান শিরোনামে ৯আগষ্ট আমার কক্সবাজারে সংবাদ প্রকাশের পর সেই প্রতারক সিন্ডিকেটের প্রধান মো. মিজানুর রহমান মিজান (২৯) যুবলীগ থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে। একই সাথে সংবাদটি প্রকাশের পর বেবিয়ে এসেছে বহিষ্কৃত মিজানের নানা তথ্য।

প্রতারণার অভিযোগ জেলহাজতে থাকা মিজান চকরিয়া উপজেলার চিরিঙ্গা ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। তিনি একই ইউনিয়নের সংরক্ষিত মহিলা ইউপি সদস্য রাশেদা বেগমের পুত্র। তাঁর বিরুদ্ধে বর্তমানে একাধিক প্রতারণা, অর্থ হাতিয়ে নেয়া ও চাঁদাবাজির অভিযোগে একাধিক মামলা এবং অভিযোগ রয়েছে।

১০আগষ্ট রাতে চকরিয়া উপজেলা যুবলীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম শহিদ ও সম্পাদক কাউছার উদ্দিন কছিরের স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে তাকে চিরিঙ্গা ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদকের পদ থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করে।

এবিষয়ে কক্সবাজার জেলা যুবলীগ সভাপতি সোহেল আহমদ বাহাদুর বলেন, ‘দলীয় শৃঙ্খলা পরিপন্থী কাজে জড়িত থাকার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় মিজানকে বহিষ্কার করতে চকরিয়া উপজেলা ও ইউনিয়ন যুবলীগকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কারো অপরাধের দায়ভার সংগঠন বহন করবে না। তাকে কে যুবলীগে স্থান দিয়েছে তাও খতিয়ে দেখা হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘ আমার কক্সবাজারে তথ্যবহুল সংবাদটি দেখার পর আমার দৃষ্টিগোচর হয়। সঙ্গে সঙ্গে উপজেলা যুবলীগকে অবহিত করি। মিজান একজন বড়মাপের প্রতারক তা সত্যতা পাওয়া গেছে। যুবলীগ একটি সু-শৃঙ্খল সংগঠন। ভবিষ্যৎতে যুবলীগের কেউ দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ বা কোন প্রতারণায় যুক্ত থাকলে তাদের বিরুদ্ধেও কঠোর সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন যুবলীগ নেতা বলেন, ‘মিজানকে ইউনিয়ন যুবলীগে পদ দেওয়ার সময় আমরা চরমভাবে বিরোধীতা করেছিলাম। কিন্তু অদৃশ্যভাবে সেই ইউনিয়ন যুবলীগের পদে চলে আসে।’

চকরিয়া উপজেলা যুবলীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম শহিদ বলেন, ‘সংবাদ প্রকাশের পর তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায়। কক্সবাজার জেলা যুবলীগ সভাপতি সোহেল আহমদ বাহাদুর ও সাধারণ সম্পাদক শহিদুল হক সোহেলের নির্দেশে তাকে যুবলীগকে থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে।’

উল্লেখ্য, দীর্ঘদিন ধরে মোবাইল ফোনে প্রতারণা করে রাজনীতিবিদ ও জনপ্রতিনিধিদের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে আসছিলেন মিজান। ৩০জুলাই চাঁদপুর জেলার হাইমচর থানা পুলিশ তাকে বান্দরবানের আলীকদম এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে। এরপর তাঁর চাঞ্চল্যকর সব তথ্য বেরিয়ে আসতে থাকে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2019-2020 | কক্সবাজার ক্রাইম নিউজ
Theme Customized By Shah Mohammad Robel