আর্জেন্টিনায় রহস্যজনক নিউমোনিয়ায় ৩ জনের মৃত্যু, ৬ জন চিকিৎসাধীন

চলতি সপ্তাহে আর্জেন্টিনায় অজানা উৎস থেকে এক ধরণের নিউমোনিয়ায় তৃতীয় একজনের মৃত্যু হয়েছে। মৃত্যুর সংখ্যা এখন পর্যন্ত একটি ক্লিনিকে সীমাবদ্ধ। বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ এ কথা জানিয়েছে।
তুকুমানের স্বাস্থ্যমন্ত্রী লুইস মেডিনা রুইজ সাংবাদিকদের বলেছেন, উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় তুকুমান প্রদেশে নয়জন ব্যক্তি একটি রহস্যময় শ্বাসকষ্টের অসুস্থতায় আক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে প্রাইভেট ক্লিনিকের আটজন মেডিকেল কর্মী রয়েছে।
সোমবার থেকে এই তিন জনের মৃত্যু হয়েছে, এদের দুইজর স্বাস্থ্যকর্মী এবং সর্বশেষ মারা যাওয়া ব্যক্তি ওই ক্লিনিকের রোগী ছিলেন।
কর্তৃপক্ষ পরীক্ষা চালাচ্ছে কিন্তু মেডিনা রুইজ বলেছেন যে তারা ইতিমধ্যেই কোভিড-১৯, ফ্লু, ইনফ্লুয়েঞ্জার ধরন এ এবং বি, লিজিওনেলা ব্যাকটেরিয়াজনিত রোগ এবং ইঁদুর দ্বারা ছড়ানো হান্টাভাইরাসকে বাতিল করেছে।
বুয়েনস আয়ারসের মালব্রান ইনস্টিটিউটে নমুনা পাঠানো হয়েছে।
সর্বশেষ শিকার হলেন একজন ৭০ বছর বয়সী মহিলা যাকে অস্ত্রোপচারের জন্য ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছিল।
সোমবার রহস্যজনক রোগটির প্রথম শিকার হন ক্লিনিকের দুইস্বাস্থ্য কর্মী এবং দুই দিন পর দ্বিতীয় মৃত্যুর ঘটনা ঘটে।
প্রথম ছয়জন রোগীর ১৮ থেকে ২৩ আগস্টের মধ্যে উপসর্গগুলো দেখা দেয়।
মেডিনা রুইজ বুধবার বলেছিলেন যে রোগীরা ‘কোভিডের মতো ফুসফুসের প্রদাহ ও ক্ষত সৃষ্টির মতো দ্বিপাক্ষিক নিউমোনিয়াসহ শ্বাসতন্ত্র গুরুতরভাবে আক্রান্ত হয়।’
লক্ষণগুলির মধ্যে রয়েছে বমি, উচ্চ জ্বর, ডায়রিয়া এবং শরীরে ব্যথা।
চিকিৎসাধীন ছয়জনের মধ্যে গুরুতর অবস্থায় চারজন হাসপাতালে এবং দ’ুজন বাড়িতে আইসোলেশনে ছিলেন। ক্লিনিকের অন্যান্য সমস্ত কর্মীদের নজরদারি করা হচ্ছে।
বিশেষজ্ঞরা সম্ভাব্য কারণ অনুসন্ধানে দূষণ বা বিষের জন্য পানি এবং এয়ার কন্ডিশনার পরীক্ষা করছেন।
প্রাদেশিক স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয় বুধবার বলেছে যে, প্রাদুর্ভাব একটি সংক্রামক এজেন্ট থেকে আসতে পারে, তবে তদন্তকারীরা ‘বিষাক্ত বা পরিবেশগত কারণ’ বাদ দিচ্ছেন না।
সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ মারিও রায়া বৃহস্পতিবার বলেছিলেন ‘আপাতত আমাদের ক্লিনিকের বাইরে আক্রান্ত কোনও রোগী নেই’।

Leave a Reply

Your email address will not be published.