উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ৬ মাসে ৪লাখ ইয়াবা ১৪শ অপরাধী ও ১৫টি অস্ত্র

বিশেষ প্রতিনিধি।

কক্সবাজারের উখিয়া ১৫ টি রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে গেলো ৬ মাসে অভিযান চালিয়ে ৪ লক্ষ ইয়াবা ১৫টি দেশী-বিদেশি আগ্নেয়াস্ত্র এবং কথিত রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী সংগঠন আরসা’র ৪১৪ সদস্য ও ৭টি হত্যামামলার ২৯ জন আসামীসহ ১হাজার ৪১৬ জন রোহিঙ্গা নারী পুরুষকে গ্রেফতার করেছে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (১৪ এপিবিএন)।

এপিবিএন সূত্রে জানাযায়, চলতি বছরের জানুয়ারী থেকে জুন পর্যন্ত উখিয়ার ১৫টি রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে ৩ টি বিদেশি পিস্তল, ১২ টি দেশীয় আগ্নেয়াস্ত্র, ২০ রাউন্ড গুলি, ১৭ রাউন্ড কার্তুজ, ৩টি ম্যাগজিন, ২০০ এর অধিক বিভিন্ন দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়।

এ সংক্রান্ত ঘটনায় ১৫ টি অস্ত্র মামলায় ১৯ জন অবৈধ অস্ত্রধারীকে গ্রেফতার করা হয়। ক্যাম্প এলাকায় ডাকাতি প্রস্তুতিকালে ৫২ জন রোহিঙ্গা দুষ্কৃতিকারীকে গ্রেফতার করে ১০ টি ডাকাতি প্রস্তুতি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এছাড়াও ৩ লাখ ৯৩ হাজার ৫১৯ পিস ইয়াবা, ৩ কেজি ৬৯ গ্রাম গাঁজা , ১৮৮ ক্যান বিয়ার, ১২ বোতল হুইস্কি, ৬২৫৪ লিটার চোলাইমদ ও মাদক ক্রয় বিক্রয়ের ৯ লাখ ৩৬ হাজার ৭৩০ টাকা উদ্ধার করা হয়।

এ সংক্রান্ত ঘটনায় ১৫৪ টি মামলায় ২০৩ জন আসামিকে গ্রেফতার করা হয়। ২২৬ গ্রাম স্বর্ণ, ৩২১ মন চাল, ৩০ মন চিনি, ১৮২৩ লিটার সয়াবিন তৈল, ৮১৪ কেজি ডাল, ২০ মন সুজি সহ আরো অনেক চোরাচালান পন্য আটকের ঘটনায় ৫৬১ জন রোহিঙ্গা কে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ৫ লাখ ১ হাজার ৩০০ টাকা জরিমানা করা হয় এবং ৫৪ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা প্রদান করা হয়।

১৪ এপিবিএন এর অধিনায়ক পুলিশ সুপার নাইমুল হক জানান, চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। অতি শিগ্রই মাদক ও অন্যান্য অপরাধ শূন্যের কৌটায় নামিয়ে আনতে এপিবিএন কাজ চালিয়ে যাচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.