চকরিয়ায় বন্যহাতির বিরুদ্ধে থানায় জিডি

এম জিয়াবুল হক, চকরিয়া:

চকরিয়ায় কৃষকের সবজি খেতে তান্ডব চালিয়ে ব্যাপক ক্ষতিসাধনের অভিযোগে বন্যহাতির পালের বিরুদ্ধে সাধারণ ডায়েরি রুজু করা হয়েছে। শনিবার ৬ আগস্ট সবজি খেতে দুই লাখ টাকার ক্ষতিসাধন হয়েছে দাবি করে ভুক্তভোগী কৃষক নুরুল ইসলাম ( ৫০) বাদি হয়ে চকরিয়া থানায় এ জিডি করেছেন।
কৃষক নুরুল ইসলাম উপজেলার ডুলাহাজারা ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের চাবাগান এলাকার মৃক আলী মিয়ার ছেলে।
থানার জিডিতে কৃষক নুরুল ইসলাম বলেন, ডুলাহাজারা ইউনিয়ননের রিংভং মৌজার উত্তর পাড়ার পূর্বপাশে বিএস ৬০ নং খতিয়ানের বিএস ৭৬৩ দাগরে বর্গা নেয়া ১৪০শতক জমিতে বিপুল টাকা খরচ করে বটবটি,শশা,লাউ,তিতকড়লা সহ বিভিন্ন জাতের সবজি ক্ষেত করেছেন। ইতোমধ্যে সবজি বিক্রিও শুরু করেছেন।
এরই মধ্যে গত ৪ ও ৫ আগস্ট দুইদিন ধরে সেখানে বনাঞ্চল থেকে নেমে আসা ১০/১২ টি বন্যহাতির পাল হানা দিয়ে তান্ডব চালায়। এতে কৃষক নুরুল ইসলামের বেশিরভাগ সবজি খেত নষ্ট করে দিয়েছে বন্যহাতির পাল।
ভূক্তভোগি কৃষক নুরুল ইসলামের দাবি,তার জমিতে তান্ডব চালিয়ে বন্যহাতির পাল প্রায় দুই লাখ টাকার ক্ষতিসাধন করেছে। চাষের শুরুতে তিনি ব্র্যাক ব্যাংক থেকে ঋণ নিলেও এখন সবজি খেত নষ্ট হওয়ার কারনে ব্যাংকের দেনা পরিশোধ কিভাবে করবেন তা নিয়ে দুচিন্তায ভুগছেন।
ডুলাহাজারা ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান মো. শওকত আলী বলেন, বন্যহাতির তান্ডবে কৃষক নুরুল ইসলামের পুরো সবজি ক্ষেত নষ্ট হয়ে গেছে। এখন খেতের ফসল হারিয়ে আর্থিকভাবে দেউলিয়া হয়ে পড়েছে।
জানতে চাইলে কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের চকরিয়া উপজেলার ফাঁসিয়াখালী রেঞ্জকর্মকর্তা মিজানুর রহমান বলেন, ইউনিয়নের চাবাগান সহ আশপাশ এলাকায়, ইদানিং বন্যহাতব লোকালয়ে ঢুকে পড়েছে বলে শুনেছি।
একইভাবে গত কদিন আগে ডুলাহাজারা ইউপির রিংভং মৌজার, চা-বাগান এলাকায় নুরুল ইসলাম নামের এক কৃষকের সবজি ক্ষেত নষ্ট করেছেন বলে আমাকে জানিয়েছে। এব্যাপারে ক্ষতিসাধনের তথ্যসহ লিখিত আবেদন পাওয়া গেলে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হবে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.