টেকনাফে মালয়েশিয়াগামী ট্রলারডুবি, নারীসহ ৩৯ রোহিঙ্গা উদ্ধার

অবৈধভাবে মালয়েশিয়া যাওয়ার পথে ট্রলার ডুবির ঘটনায় ৩৯ জনকে উদ্ধার করেছে বাংলাদেশের কোস্টগার্ড। এখনো আরো অনেকে নিখোঁজ রয়েছে বলে জানিয়েছেন উদ্ধারকৃতরা।
মঙ্গলবার ভোরে কক্সবাজারের টেকনাফের বাহারছড়ার অদূরে এ ঘটনা ঘটে বলে বেনারকে জানান কোস্টগার্ডের টেকনাফ বাহারছড়ার স্টেশন কমান্ডার মো.দেলোয়ার হোসেন।
তিনি বলেন, “নৌকা ডুবির ঘটনায় এখন পর‌্যন্ত ৩৯ জনকে জীবত উদ্ধার করা হয়েছে। ওই ট্রলারে অর্ধশতাধিকের বেশি যাত্রী ছিল, যারা অবৈধভাবে মালয়েশিয়ায় যাওয়ার জন্য রওনা হয়েছিলেন।”
বাহারছড়া ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি সদস্য ফরিদ উল্লাহ বলেন, “উদ্ধার কাজ অব্যাহত রয়েছে। জেলেরা সাগরে লাশ ভাসছে বলে জানিয়েছে। এখনও বেশকিছু লোক নিখোঁজ রয়েছে।”
টেকনাফের বাহারছড়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক নুর মোহাম্মদ জানান, “ভোরের কোনো এক সময়ে ট্রলারটি মালয়েশিয়া যাওয়ার জন্য রওনা হয়েছিল। সম্ভবত অতিরিক্ত মানুষ বোঝাইয়ের কারণে সেটি সাগরে ডুবে যায়। ট্রলারে কতজন লোক ছিল এখনও জানা যায়নি।”
তিনি জানান, “উদ্ধারকৃতদের বেশিরভাগই রোহিঙ্গা। তারা বিভিন্ন ক্যাম্পের বাসিন্দা। জেলেরা সাগরে লাশ ভাসমান দেখছে বলে জানিয়েছে। তবে আমরা এখনো কোন লাশ পাইনি।”
উদ্ধারকৃত টেকনাফ শালবনের বাসিন্দা রোকসানা বেগম বেনারকে বলেন, “আমার স্বামী দীর্ঘ দিন মালয়েশিয়া রয়েছে। তাঁর কাছে যাওয়ার জন্য সাগরপথ পাড়ি দিচ্ছিলাম। এর আগেও যাত্রা করে ব্যর্থ হয়েছিলাম।”
ডুবে ট্রলারে আরো অনেক শিশুসহ নারী ছিলেন বলেও জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *