২০ হাজার টাকার জন্য মামাতো বোনকে অপহরণ!

কক্সবাজার শহরের হোটেল-মোটেল জোন এলাকার মোহাম্মদীয়া হোটেল থেকে শিশু অপহরণের দায়ে স্বামী-স্ত্রীকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব-১৫।

এরা হলেন, বরিশালের হিজলা উপজেলার উসমান মঞ্জিল বড়জাইলা এলাকার কেরামত আলীর মেয়ে কেয়া (২২) ও তার স্বামী মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার কবুতরখোলা এলাকার নাছির হাসানের ছেলে ছুফুয়ান খান রাহাত (২৪)।

শুক্রবার (১২ আগস্ট) রাত পৌনে ১টায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন র‍্যাব-১৫ এর সহকারী পরিচালক মো. বিল্লাল উদ্দিন।

র‍্যাব-১৫ এর সহকারী পরিচালক মো. বিল্লাল উদ্দিন জানান, শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় মোহাম্মদীয়া হোটেলের একটি কক্ষ থেকে দুই বছরের এক অপহৃত শিশু উদ্ধার করা হয়। অপহরণে জড়িত স্বামী-স্ত্রীকে গ্রেপ্তার করা হয়।

জিজ্ঞাসাবাদে তারা জানায়, শিশুটি গ্রেপ্তার হওয়া কেয়ার আপন মামাতো বোন। তার স্বামী ছুফুয়ান ঢাকার একটি গার্মেন্টসে চাকরি করতো। কিন্তু হঠাৎ চাকরি চলে যাওয়ায় বিভিন্ন জায়গা থেকে ঋণ করে সংসার চালাতে থাকে। পাওনাদারের ২০ হাজার টাকা ঋণ পরিশোধের ভয়ে ভাড়া বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। পরে ওই টাকা জোগাড় করতে আপন মামাতো বোনকে অপহরণ করে ২০ হাজার টাকা মুক্তিপণের টাকা দাবি করে। শিশুটির পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে কক্সবাজার থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

শিশুটিকে উদ্ধার করে তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন বলে জানান র‍্যাবের এই কর্মকর্তা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.